আমেরিকার প্রেসিডেন্টদের ঘড়িকথন


0

‘সময়ের মূল্য’ নামে একটা প্রবন্ধ প্রাথমিক কিংবা মাধ্যমিক শিক্ষাজীবনে আমরা সবাই মোটামুটি মুখস্ত করেছি, যদিও বাস্তব জীবনে তার প্রতিফলন কতটুকু হয়েছে সেটা বেশ বিতর্কেরই বিষয়। মানুষভেদে সময়ের মূল্যও হয়ত বিভিন্ন হয়, পাশের বাসার আন্টির সময়ের মূল্য আর আমেরিকার প্রেসিডেন্টের সময়ের মূল্য তো আর এক হবে না! এই মূল্যবান সময় পরিমাপের জন্য আমেরিকার প্রেসিডেন্টদের যে সময়-পরিমাপক যন্ত্র, সোজাকথায় ঘড়ির নাম এবং দামও যে সাধারণের চেয়ে ভারী হবে তাও বলাই বাহুল্যমাত্র! তেমনি কয়েকজন আমেরিকার প্রেসিডেন্টদের ঘড়িই এই প্রবন্ধের বিষয়বস্তু।

জর্জ ওয়াশিংটনকে দিয়েই শুরু করা যাক! ১৭৮৮ সালের এক সকালে হুট করেই তাঁর মনে হলো, একটা ।পকেটঘড়ি তাঁর খুবই প্রয়োজন। যেই ভাবা সেই কাজ! তৎক্ষনাৎ তিনি চিঠি লিখলেন গভর্নর মরিসকে, যিনি তখন ফ্রান্সে ছিলেন। চিঠিতে বললেন, টমাস জেফারসন, জেমস ম্যাডিসনকে যেমন ঘড়ি এনে দিয়েছিলেন তাঁর তেমন একটি ঘড়িই চাই! মরিস সেই একটি ঘড়ির জন্য দুই দুইজন কারিগরের দুয়ারে ঘুরলেন, মরিলি এবং গ্রেগসন, কিন্তু ফলাফল যাচ্ছেতাই। অবশেষে লেপিন নামক এক ঘড়ি প্রস্তুতকারক, যিনি রাজা ষষ্ঠদশ লুইয়ের জন্য ঘড়ি তৈরি করতেন, তাঁর কাছে এসেই পাওয়া গেলো সেই কাঙ্ক্ষিত ঘড়ি। ওয়াশিংটনের সেই ঘড়ির নাম্বার ছিলো ৫৩৭৮। ১৯৩৫ সাল পর্যন্ত এই ঘড়িটি ওয়াশিংটন ফ্যামিলির অধিকারে ছিলো।

ছবি- watchtimes.com

আব্রাহাম লিংকনের ঘড়িটি ছিলো “ওয়ালথাম” কোম্পানির, আমেরিকার গৃহযুদ্ধে অংশগ্রহনকারী অনেক সৈনিকই যে মডেলের ঘড়িটির মালিক ছিলেন। ঘড়িটির নাম ছিলো ওয়ালথাম এলেরি (Wm. Ellery)। লিংকনের ঘড়িটির সিরিয়াল ছিলো ৬৭৬১৩। দাম কম এবং ভালো মানের হওয়ায় এই মডেলের ঘড়িটির জনপ্রিয়তা ছিলো আকাশছোঁয়া। বিস্ময়কর ব্যাপার এটিই যে একজন প্রেসিডেন্ট হওয়া সত্ত্বেও লিংকন দামী কোনো ব্র‍্যান্ডেড ঘড়ি না কিনে সাধারণ মানুষের পছন্দের আমেরিকান ঘড়িই ব্যবহার করতেন।

ওই সময় সুইস ঘড়ি কোম্পানির কাছে এই আমেরিকান ঘড়ির কোম্পানিগুলো যথেষ্ট ঈর্ষণীয় ছিলো, কারণ অল্প দামে ভালো মানের ঘড়ি তৈরির বিষয়টি আমেরিকান কোম্পানিগুলো ভাবেই রপ্ত করেছিলো।

ছবি-Watchtimes.com

জন এফ কেনেডির ঘড়িটি ছিলো ওমেগার। তিনি এটি পেয়েছিলেন ফ্লোরিডার সিনেটর গ্র্যান্ট স্টকডেলের কাছ থেকে৷ ঘড়ির বাক্সে লেখা ছিলো, “প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির জন্য তাঁর বন্ধু গ্র্যান্টের উপহার”। মজার ব্যাপার হচ্ছে, স্টকডেল কেনেডিকে ঘড়িটি যখন দিয়েছিলেন, কেনেডি তখনও প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হননি।

এই ঘড়িটি দেখার পর কেনেডির স্ত্রী স্টকডেলকে লিখেছিলেন, “এই ঘড়িটি ওঁকে আমার দেয়া ঘড়িটির থেকেও বেশি সুন্দর দেখতে।” কেনেডির স্ত্রী কেনেডিকে একটি লুই ক্যার্টায়ার ট্যাংক নামক ঘড়ি উপহার দিয়েছিলেন। যাই হোক, কেনেডির ওমেগা ঘড়িটি ২০০৫ সালে ওমেগা মিউজিয়াম চার লক্ষ বিশ হাজার ডলারে নিলাম থেকে কিনে নেয়৷

কেনেডির কথা উঠলে মনরোর কথাও তুলতে হয়। মেরিলিন মনরোর নাম কে-ই বা না জানে! তিনি প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডিকে একটি সোনার রোলেক্স ঘড়ি উপহার দেন, যাতে লেখা ছিলো, “Jack, With love as always, from Marilyn, May 29th, 1962.” এই উপহারটিকে যদি মেরিলিন মনরোর সাথে তাঁর ঘনিষ্ট সম্পর্কের প্রমাণ হিসেবে ধরে নিয়ে কোনো বিতর্ক তৈরি হয়, সেই ভয়ে কেনেডি ঘড়িটি অন্য আরেকজনকে উপহার হিসেবে দিয়ে দিয়েছিলেন। ২০০৫ সালে ঘড়িটি এক লক্ষ বিশ হাজার ডলারে নিলামে বিক্রি হয়, যেখানে ঘড়ির সাথে মনরো’র লেখা একটি প্রেমের কবিতাও ছিলো!

ছবি-Watchtimes.com

জর্জ এইচ ডব্লু বুশের একটা বদভ্যাস ছিলো। কোনো বিতর্ক হোক বা গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা, সেটা চলাকালে তিনি ব্যস্তভাবে ঘড়ি দেখতেন। এই ঘড়িপ্রিয় মানুষটিকে একটি ভ্যালকেইন ক্রিকেট ঘড়ি উপহার দেয়া হয়েছিলো, যদিও তিনি এটি পরতেন কিনা জানা যায়নি। যে ঘড়িটি তিনি পরতেন সেটি ছিলো একটি টাইমেক্স (Timex) ঘড়ি। এটি কংগ্রেসম্যান বিল ইয়ংয়ের দেয়া। ঘড়িটির রঙ ছিলো কালো।

বিল ক্লিনটনের ঘড়ির সংগ্রহই বোধহয় অন্যান্যদের চেয়ে বেশি ছিলো। কিন্তু তাকে সচরাচর একটি আয়রনম্যান ডিজিটাল ঘড়ি পরতে দেখা যেত, যেটিকে খুব সম্ভবত পৃথিবীর সবচে ভালো আর সহজ অ্যালার্ম ঘড়ি বলা হত। এছাড়া তিনি লিমিটেড এডিশনের A. Lange & Söhne
Grosse Langematik Gangreserve কোম্পানির ঘড়ি পরতেন, যেটি ঘড়ি বিক্রয় প্রতিষ্ঠান Wempe – এর শতবর্ষপূর্তি উপলক্ষে তৈরি করা হয়েছিলো।

ছবি-ashton-blakey-antique­s.com

জর্জ ডব্লু বুশ সাধারনত টাইমেক্স ঘড়িই পরতেন এবং পছন্দ করতেন। ২০০০ সালের নির্বাচনী প্রচারণার সময়ও তাঁকে একটি টাইমেক্স আই কন্ট্রোল ঘড়ি পরতে দেখা যায়৷ পরবর্তীতে অবশ্য তিনি একটি সাধারণ, সাদাকালো ডায়ালের টাইমেক্স ইনডিগ্লো (Timex-Indiglo) নামের ঘড়ি ব্যবহার করতে শুরু করেন।

ছবি-ashton-blakey-antique­s.com

বারাক ওবামার পুরনো মডেলের ঘড়ির প্রতি একটা আলাদা আকর্ষণ ছিলো। প্রায় দশ বছর ধরে তিনি একটি TAG Heuer 1500 মডেলের ঘড়ি পরতেন। প্রেসিডেন্ট হবার পরেও কখনও কখনও তাঁকে এই ঘড়িটি পরতে দেখা গিয়েছে। প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন সময়ে তিনি ব্যবহার করতেন Jorg Grey নামের একটি কালো রঙের ডায়ালের ঘড়ি, যেটি তিনি উপহার হিসেবে পেয়েছিলেন আমেরিকান সিক্রেট সার্ভিসের কাছ থেকে। বর্তমানে তিনি New Balance N7 মডেলের একটি ঘড়ি ব্যবহার করছেন৷

ছবি-ashton-blakey-antique­s.com

আমেরিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট, আমাদের অতিপ্রিয়(!) এবং অতিপরিচিত ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি নিজস্ব ঘড়ির কালেকশন থাকলেও তাঁকে সাধারণত আশির দশকের মডেলের একটি সোনার ঘড়িই পরতে দেখা যায়৷ যে রাত্রে তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন, সেদিন তাঁর হাতে ছিলো একটি ক্লাসিকাল Vacheron Constantin Historiques Ultra-Fine 1968 মডেলের ঘড়ি।

ইদানীং তিনি একটি স্বর্ণনির্মিত Rolex Day-Date মডেলের ঘড়ি ব্যবহার করছেন। এছাড়াও তিনি একটি নীল ডায়ালের Patek Philippe Ellipse ঘড়িও উপহার হিসেবে পেয়েছেন।

ছবি-ashton-blakey-antique­s.com

বিভিন্ন সময়ে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট যারা হয়েছেন, ঘড়ির প্রতি তাঁদের সবার আকর্ষণ না থাকলেও উল্লেখযোগ্য নাম এবং দামের ঘড়ি তারা সবাই ব্যবহার করেছেন, সেটা কেনা হোক কিংবা উপহার পাওয়া। অতএব তাঁদের সময়ের মূল্য বেশি ছিলো না-কি ঘড়ির মূল্য, সেটা নিয়েও ছোটখাটো একটা বিতর্ক দাঁড়া করানো যেতেই পারে বৈকি!


Like it? Share with your friends!

0
Jahangir Alam

0 Comments

Your email address will not be published. Required fields are marked *